এইমাত্র পাওয়া

৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সেন্টমার্টিন বিএনপি’র বিশাল জনসমাবেশ

সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

ডেস্ক নিউজ:

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ৬ টি শর্ত দিয়েছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সব স্থায়ী কমিটির নেতার বক্তব্যে বারবার এই শর্তগুলো এসেছে। এরমধ্যে নির্বাচনের প্রধান শর্ত হচ্ছে নির্বাচনের আগে দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সব বন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তিসহ সব মামলা প্রত্যাহার করা।

তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকালে বিএনপির ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত জনসমাবেশ করেন সেন্টমার্টিন দ্বীপ বিএনপি।

জনসভায় নেতারা বলেন,খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই। তার নামে দেওয়া সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে। সংসদ ভেঙে দিতে হবে। নির্বাচনের আগে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে হবে। নির্বাচনে আগে সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিতে হবে, বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে পুনর্গঠন করতে হবে।

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টা থেকে সেন্টমার্টিন দ্বীপের আশপাশের এলাকা থেকে দলটির নেতাকর্মীরা দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ডসহ ছোট ছোট মিছিল নিয়ে ইউরো এশিয়া সমাবেশ স্থলে আসতে শুরু করেন। দুপুর আড়াইটায় ইউরো এশিয়া রেস্টুরেন্ট অস্থায়ী সেমিনার হলে বিএনপির জনসভায় শুরু হয়।

জনসভায় উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে দ্বীপটির সাংগঠনিক নেতারা বলেন, বুকে সাহস,বল নিয়ে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে। আমরা আর বেগম জিয়াকে কারাগারে দেখতে চাই না। আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে মুক্ত করে আনা হবে।

আওয়ামী লীগকে ইতিহাস আর রক্ষা করতে পারবে না উল্লেখ করে সেন্টমার্টিন বিএনপি নেতারা বলেন, তারা জানে জনগণ আর তাদেরকে রক্ষা করবে না। কারণ,এদেশের জনগণ আওয়ামী লীগ থেকে দূরে সরে গেছে। এজন্য তারা এখন যন্ত্রের ওপর ভর করে ক্ষমতায় আসতে চায়। এজন্য ইভিএমের (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ওপর ভর করছে।

আওয়ামী লীগের নেতারা সবসময় দুঃস্বপ্ন দেখেন বলে মন্তব্য করে নেতারা আরও বলেন, ‘আসলো আসলো বিএনপি আসলো, তারেক রহমান আসলো, খালেদা জিয়া আসলো—এই ভয়ে রাতে তাদের ঘুম হয় না। ২৪টা ঘণ্টা শুধু বিএনপি,খালেদা জিয়া,তারেক রহমান ভীতি।এর থেকে বাঁচার জন্য কতো রকমের কারসাজি যে তারা করছে।’

দলটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ জনসভায় উপস্থিত ছিলেন সেন্টমার্টিন বিএনপির আহবায়ক, যুগ্ন আহবায়কবৃন্দ, সাবেক সভাপতি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক,যুবদল সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ছাত্রদল সভাপতি, সাধারন সম্পাদক, শত শত বিভিন্ন ইউনিটের নেতা কর্মীরাসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত ছিলেন। আজ পুরো সেন্টমার্টিন রাজপথ বিএনপির দখলে থাকায় বাকরুদ্ধ সেন্টমার্টিন আওয়ামীলীগ। বিশাল সমাগম উপস্থিতি যা সেন্টমার্টিন বিএনপির জন্য এক ঐতিহাসিক দিন হয়ে থাকবে।

আর্কাইভ

সেপ্টেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« আগ    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

শিরোনাম :