এইমাত্র পাওয়া

দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে টেকনাফে ২৯১ মিলি

অক্টোবর ১৩, ২০১৮

নিউজ ডেস্ক:

সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র প্রভাবে গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা থেকে টেকনাফে ২৯১ মিলিসহ সারা দেশে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। শনিবারও দেশের আকাশ মেঘলাসহ বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি স্থল নিম্নচাপ আকারে পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলে অবস্থান করছে।

আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ ক্রমশ দুর্বল হচ্ছে। রোববার (১৪ অক্টোবর) থেকে আবহাওয়ার বিরুপ পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

ঘূর্ণিঝড় পর্যবেক্ষণে আবহাওয়া অধিদফতরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে (নং-২০) শনিবার বলা হয়েছে, উড়িষ্যা-গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত স্থল নিম্ন চাপটি উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে সকাল ৬টায় গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলে অবস্থান করছিল। এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে পারে।
নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালণশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে।

আবহাওয়াবিদ এ কে এম রুহুল কুদ্দুছ জানান, উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর বিভাগরে কিছু কিছ জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

দেশের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি এবং অন্যত্র সামান হ্রাস পেতে পারে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এদিকে, গত কয়েক দিন থেকে ঢাকাসহ সারা দেশে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। শনিবার আকাশ অনেকটা মেঘমুক্ত হতে শুরু করেছে। সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে টেকনাফে ২৯১ মিলি। ঢাকায় ২৪ মিলি, ময়মনসিংহে ৭ মিলি, চট্টগ্রামে ৭৭ মিলি, সিলেটে ৩৫ মিলি, রাজশাহীতে ১৭ মিলি, খুলনায় ১৫, বরিশালে ১৬ এবং রংপুরে সামান্য বৃষ্টিপাত হয়েছে।
পরবর্তী ৭২ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

অধিদফতরের একজন আবহাওয়াবিদ বলেন, রোববার থেকে আবহাওয়া পরিস্থিতির উন্নতি হবে। আর ঘূর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে স্থলনিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এটি আরো দুর্বল হয়ে ত্রিপুরার দিকে চলে যাবে।

আর্কাইভ

ডিসেম্বর ২০১৮
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« নভে    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  

শিরোনাম :